অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি । কি করে আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইনকাম করতে পারবেন

 অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি এবং কিভাবে কাজ করে আর কি করে আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইনকাম করতে পারবেন।আপনি হয়তো কোথাও না কোথাও শুনেছেন যে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে টাকা ইনকাম করা যায়। কিন্তু কত টাকা ইনকাম করতে পারবেন এবং কোন সঠিক পদ্ধতি প্রয়োগ করলে ভালো আয় করা সম্ভব তা নিয়ে কথা বলবো।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি


অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হল একপ্রকার ডিজিটাল মার্কেটিং। এই সময়ে প্রায় 90 শতাংশ কম্পানি এফিলিয়েট মার্কেটিং করিয়ে থাকেন। কোন একটা কোম্পানির কোন একটি প্রডাক্ট আপনার লিংকের দ্বারা বিক্রয় করাকে বলা হয় অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। 

এর জন্য আপনাকে  জয়েন হতে হবে যে কোম্পানির প্রোডাক্ট আপনি বিক্রি করবেন সেই কোম্পানির অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম এ। 

অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম এ জয়েন হওয়ার পর আপনি যে প্রোডাক্টটি বিক্রি করবেন সেই প্রোডাক্টটির একটি লিংক দেওয়া হবে।সেই লিংকটি আপনি আপনার হোয়াটসঅ্যাপ Groups কিংবা সোশ্যাল মিডিয়া এবং অন্যান্য জায়গায় শেয়ার করতে পারবেন। যদি কোন ব্যক্তি আপনার দেওয়া লিংকে ক্লিক করে ওই প্রোডাক্টটি ক্রয় করেন তাহলে আপনি কিছু শতাংশ কমিশন পাবেন। 

প্রত্যেকটি প্রোডাক্টের একই শতাংশ কমিশন হয়না। বিভিন্ন প্রোডাক্ট এর বিভিন্ন শতাংশ কমিশন কোম্পানির তরফ থেকে দেওয়া হয়। এই এফিলিয়েট মার্কেটিং প্রোগ্রামে জয়েন হতে গেলে কোন টাকা লাগে না। অন্যদিকে যে কম্পানির প্রোডাক্ট আপনি বিক্রয় করবেন তার তরফ থেকে আপনাকে কমিশন দেওয়া হবে। অতএব এটি একটি ভালো পথ অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার।

আর একটা কথা জানিয়ে রাখি আজকাল বিভিন্ন ধরনের কম্পানি দেশে বিদেশে ছড়িয়ে আছে। এর মধ্যে কিছু কিছু জালিয়াতি মানুষ এর সুযোগ নেওয়ার চেষ্টা করছে। আপনাকে অনেক টাকার লোভ দেখিয়ে প্রোডাক্ট সেল করিয়ে নিয়ে আপনার সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ করে দিচ্ছে। 

সে ক্ষেত্রে আপনাকে খেয়াল রাখা খুব প্রয়োজন। এইসব জালিয়াতি কম্পানির কাজ থেকে দূরে থাকুন এবং বিশ্বস্ত কোম্পানির সাথে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর কাজ করুন।

কিভাবে এফিলিয়েট মার্কেটিং জয়েন হবেন


অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম এ জয়েন্ট হওয়া খুবই সহজ। আপনি যে কোম্পানি সাথে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করবেন সেই কোম্পানির নামের আগে অ্যাফিলিয়েট লিখে গুগলে সার্চ করুন।যেমন যদি আমি amazon.com এর সাথে আপলোড করতে চাই তাহলে সার্চ করতে হবে affiliate amazon.com।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি । কি করে আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইনকাম করতে পারবেন


এরপর রেজিস্ট্রেশনের জন্য যে সমস্ত তথ্য প্রদান করতে হয় সেগুলো সঠিকভাবে টাইপ করুন।কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই আপনার কাছে মেসেজ এসে যাবে যে আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং প্রোগ্রাম এর একজন মেম্বার।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করবেন


এক্ষেত্রে অনেক ধরনের পথ রয়েছে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে টাকা আয় করার। এখানে আমি তার মধ্যে কয়েকটি বিষয়ে আলোচনা করলাম।

ইউটিউব চ্যানেল বানিয়ে অ্যাফিলিয়েট ইনকাম আজকের দিনে প্রায় সমস্ত মানুষের কাছেই স্মার্টফোন রয়েছে তার সাথে রয়েছে হাই স্পিড ইন্টারনেট। এক্ষেত্রে প্রায় সমস্ত মানুষ ইউটিউব এর ভিডিও দেখতে পছন্দ করেন।

আপনাকে একটা নির্দিষ্ট ক্যাটাগরির ভিডিও বানিয়ে ইউটিউবে পোস্ট করতে হবে।আপনার ওই ইউটিউব চ্যানেলে এমন কিছু ভিডিও আপনাকে আপলোড করতে হবে যে বিষয়ে আপনি পারদর্শী এবং যে বিষয়ে ভিউয়ার অর্থাৎ দর্শক দেখতে পছন্দ করেন।

প্রথম প্রথম হতে পারে যে আপনার ওই ভিডিও টা তে দর্শক আসছে না তবুও আপনাকে ভিডিও আপলোড করা চালিয়ে যেতে হবে। আস্তে আস্তে যখন আপনার ভিডিও ইউটিউবে Rank করবে তৎক্ষণাৎ ভিউয়ার অর্থাৎ দর্শক বাড়তে থাকবে।

এরপরে আপনি যে বিষয়ে ভিডিও বানাচ্ছেন সেই ভিডিওর নিচে আপনি এফিলিয়েট লিংক দিতে পারেন।
এক্ষেত্রে যারা আপনাকে ফলো করবে তারা আপনার মতই ঠিক ওই প্রোডাক্টটি ক্রয় করার চেষ্টা করবে যেটা আপনি আপনার ভিডিওর ডেসক্রিপশন বক্সে দিয়েছেন।

উদাহরণস্বরূপ ধরুন আপনি স্মার্টফোন রিভিউ ভিডিও আপনার ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করেন।এক্ষেত্রে আপনি ভিডিও বানানোর সাথে সাথে আপনার দর্শককে রিকমেন্ট করতে পারেন আপনি যে স্মার্টফোনটি রিভিউ দিচ্ছেন সেই স্মার্টফোনটি ক্রয় করার জন্য।

এক্ষেত্রে যত আপনার সাবস্ক্রাইব বাড়বে তত দর্শক আপনার সাথে একত্রিত হবে। এবং আপনার অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এ ইনকাম এর পরিমাণ বাড়তে থাকবে
Previous
Next Post »